কাপিং থেরাপির সুফল পাচ্ছেন মাইকেল ফেলপস!

হিজামা কি ও কিভাবে করা হয়?
Sun _4 _December _2016AH 4-12-2016AD

কাপিং থেরাপির সুফল পাচ্ছেন মাইকেল ফেলপস!

রিও ডি জেনিরোতে রেকর্ড বুক আরও উজ্জ্বল করেছেন আমেরিকার নন্দিত সাঁতারু মাইকেল ফেলপস। নিজের পঞ্চম অলিম্পিকে নেমে ৪X১০০ রিলেতে জয় করেছেন স্বর্ণপদক। আর মঙ্গলবার ২০০ মিটার ফ্রি স্টাইলের ফাইনালে গেছেন তিনি। ফেলপসের সাফল্যের সাক্ষী থেকেছেন এ্যাকুয়াটিক সেন্টারে সাঁতার দেখতে আসা বিশ্বের অগণিত মানুষ। সাঁতার শেষ করে পুল থেকে ওঠার পর টিভি ক্যামেরায় দেখা গেল আমেরিকান সাঁতারুর পিঠে বেগুনি রঙের গোল গোল ছাপ। অনেকে ধরে নিয়েছিলেন এটা এক ধরনের ফ্যাশন ট্যাটু। তামাশা করে অনেককে বলতে শোনা গেল ফেলপস রাতে সম্ভবত টেনিস বলের ওপর ঘুমিয়েছিলেন।

"রিওর অলিম্পিকে ফেলপস এর গায়ের লাল দাগগুলো অবাক করেছে সবাইকে।"

পরে জানা গেল এটা এক ধরনের থেরাপী। চিকিৎসা জগতে যা কাপিং থেরাপী নামে পরিচিত। মাসল রিকভারি থ্যারাপির অংশ এটি। ফেলপস নিজেই এই রহস্যের উন্মোচন করেছেন। মিডিয়াকে বলছিলেন, রিলের ফাইনালের দিন সকালে আমি ডানদিকের কাঁধে ব্যথা অনুভব করছিলাম। তখন আমি আমেরিকা দলের চিকিৎসকের কাছে যাই কাপিং থেরাপীর জন্য। এই চিকিৎসা আগে গত এক বছর ধরেই করাচ্ছি। এতে মাসল অনেক রিল্যাক্স থাকে সাঁতার কাটার সময়। ব্যথা অনুভব হয় না।

টিম ডাক্তার আমার পিঠে ও কাঁধের নিম্নস্থলে কাপের মতো একটি গরম জিনিস বসিয়ে দেয়। কিছুক্ষণ পর অবশ্য সেটা তুলে নেয়া হয়। এতে আমার মাসল অনেক রিল্যাক্স হয়ে যায়। রক্তে অক্সিজেনের পরিমাণও বাড়ে। তবে এটা প্রচলিত চিকিৎসা নয়। একটু ব্যতিক্রম। অনেকে এই চিকিৎসা পদ্ধতি জানেন না। তবে আমি গত এক বছর ধরে এই চিকিৎসা করিয়ে দারুণভাবে উপকৃত।

Facebook Comments
aaaqwe

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Shares
Translate »

WordPress database error: [Table 'hijamacom_hijamadb.wp_sidemenu' doesn't exist]
select * from wp_sidemenu ORDER BY menu_order ASC